স্কিলস ফর এমপ্লয়মেন্ট ইনভেস্টমেন্ট প্রোগ্রাম এর অধীন প্রশিক্ষনার্থীদের সনদপত্র বিতরন অনুষ্ঠান

287
skills_for_employment_investment_program

টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে বাংলাদেশ ব্যাংক স্কিলস ফর এমপ্লয়মেন্ট ইনভেস্টমেন্ট প্রোগ্রাম Skills for EmploymentInvestment Program (SEIP) প্রকল্পের সহায়তায় ইউসেপ চট্টগ্রাম সাউথ রিজিয়নএর অধীন আমবাগান টেকনিক্যাল স্কুলের ড্রেসমেকিং এন্ড টেইলরিং ও কোয়ালিটি কন্ট্রোল ম্যানেজমেন্ট ইন আরএমজি ট্রেড থেকে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ছাত্রীদের মাঝে সনদপত্র বিতরন করা হয়।

ইউসেপ চট্টগ্রাম সাউথ রিজিয়নের ভারপ্রাপ্ত আঞ্চলিক ব্যবস্থাপক মো: আকরাম হোসেনের সভাপতিত্বে সনদপত্র বিতরন অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ব্যাংকের উপ মহা-ব্যবস্থাপক মোস্তাফিজুর রহমান  উপস্থিত থেকে সনদপত্র বিতরন করেন। এছাড়াও অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিজিএমইএ এর পরিচালক সাইফুল্লাহ মানচুর, ইউসেপ আমবাগান টেকনিক্যাল স্কুলের হেড অব টেকনিক্যাল স্কুল মোহাম্মদ এমরান, ট্রেড এক্সপার্ট নাজমুল হুদা, ডিপিও চাইল্ড রাইটস এন্ড এ্যাডভোকেসী প্রবীর দত্ত, জবপ্লেসমেন্ট কর্মকর্তা নাজমা সুলতানা হীরা, সিনিয়র প্রশিক্ষক অখিল কুমার দত্ত প্রমুখ।

seip_ucepগত ১৮ জুন ইউসেপ আমবাগান টেকনিক্যাল স্কুলের  অঢিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত সনদপত্র বিতরন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বলেন, বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নিত করতে দেশের নারী সমাজকে প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে উদ্যোক্তা হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। শুধু প্রশিক্ষণ দিয়েই বাংলাদেশ ব্যাংকের দায়িত্ব শেষ নয়। প্রত্যেক প্রশিক্ষনর্থীদের দীর্ঘ মেয়াদি পরিচর্যাও করা হবে। অর্থের অভাবে যাতে এদের উদ্যোগ ব্যহত না হয় সে জন্য বাংলাদেশ ব্যাংক ১০০ কোটি টাকার বিশেষ তহবিল গঠন করেছে। তফশীলি ব্যাংকগুলোর মাধ্যমে সহজ শর্তে ও স্বল্প সুদে প্রশিক্ষনর্থীদের ঋণ প্রদান করা হবে।

তিনি আরো বলেন, যুবকদের দক্ষ করে গড়ে তোলা ও বেকারত্বের হার কমানোর জন্য সারা দেশে বিভিন্ন শতাধিক প্রশিক্ষন প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে বাংলাদেশ ব্যাংক বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষণ দিয়ে আসছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের এসএমই অ্যান্ড স্পেশাল প্রোগ্রাম বিভাগ এ কার্যক্রমের সার্বিক দেখভাল করছে। মুলত: স্কিলস ফর এমপ্লয়মেন্ট ইনভেস্টমেন্ট প্রোগ্রাম প্রকল্পের আওতায় এ প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে।

আইসিটি, গার্মেন্টস, লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং, অটোমোবাইল ও ইন্ডাস্ট্রিয়াল ইলেকট্রিক্যাল মেইনটেন্যান্সসহ পাঁচটি সেক্টরে মোট ১২টি ট্রেডে এ প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। প্রথম দফার প্রশিক্ষণ সম্পন্ন করা হবে আগামী তিন বছরে।

এ প্রকল্পে সারা দেশে প্রশিক্ষণ পাবেন ১০ হাজার ২০০ জন। এর মধ্যে ঢাকা বিভাগে তিন হাজার ৯০০ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে এক হাজার ৭০০ জন, রাজশাহী, রংপুর, খুলনা, বগুড়ায় ৭৭৫ জন করে এবং সিলেট ও বরিশাল বিভাগে ৭৫০ জন করে প্রশিক্ষণ পাবেন।

স্কিলস ফর এমপ্লয়মেন্ট ইনভেস্টমেন্ট প্রোগ্রাম এ যে বিষয়ে প্রশিক্ষন দেয়া হয়

প্রশিক্ষণ কর্মসূচিকে স্কিল ট্রেনিং এবং আপস্কিলিং এ দুই ক্যাটাগরিতে ভাগ করা হয়েছে।

স্কিল ট্রেনিং ক্যাটাগরিতে প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে ১০টি ট্রেডে। এর মধ্যে ড্রেস মেকিং অ্যান্ড টেইলারিং, কোয়ালিটি কন্ট্রোল ম্যানেজমেন্ট ইন আরএমজি, লেদ মেশিন অপারেশন ও ইন্ডাস্ট্রিয়াল ইলেকট্রিক্যাল মেইনটেন্যান্স বিষয়ে তিন মাস মেয়াদি এবং ওয়েবসাইট ডিজাইন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট, প্রফেশনাল ফ্রিল্যান্সিং, গ্রাফিক ডিজাইন, আইটি মেইনটেন্যান্স অ্যান্ড সার্ভিসিং (আইটি সাপোর্ট সার্ভিস), সোয়েটার, নিটওয়্যার অ্যান্ড ওভেন মার্চেন্ডাইজিং এবং অটোমোবাইল মেকানিক কোর্সে ছয় মাস মেয়াদি প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে।

আপস্কিল ক্যাটাগরিতে প্রফেশনাল ফ্রিল্যান্সিং এবং গ্রাফিক ডিজাইন  এই দুটি ট্রেডে প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। প্রশিক্ষণের মেয়াদ তিন মাস। প্রফেশনাল ফ্রিল্যান্সিং কোর্সে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন মার্কেটিং, মোবাইল অ্যাপ, ওয়ার্ডপ্রেস কাস্টমাইজেশন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট, স্নাইডার এনিমেশন ডেভেলপমেন্ট, ওয়েব হোস্টিং অ্যান্ড সিএসএস শেখানো হয়। গ্রাফিক ডিজাইন কোর্সে শেখানো হয় স্পেশাল ইফেক্ট, এনিমেশন, মাল্টিমিডিয়া প্রোগ্রামিং, ফটোশপ, ইলাস্ট্রেটর, লোগো ডিজাইন ও ব্যানার ডিজাইন। পাশাপাশি প্রত্যেক কোর্সেই দেওয়া হয় এসএমই খাতে নতুন উদ্যোক্তা তৈরির প্রশিক্ষণ।

থাকছে প্রশিক্ষণ শেষে চাকরি ও অন্যান্য সুযোগ

প্রশিক্ষণ শেষে কমপক্ষে ৭০ শতাংশ প্রশিক্ষণার্থীর কাজের ব্যবস্থা করে থাকে ইউসেপ বাংলাদেশ। এ ছাড়া আবাসিক প্রশিক্ষণে অংশ নেওয়া প্রশিক্ষণার্থীরা বিনামূল্যে থাকা-খাওয়া ও অন্যান্য সুবিধা পাবেন। প্রশিক্ষণ শেষে মিলবে তিন হাজার টাকা ভাতা। পাশাপাশি প্রশিক্ষণপ্রাপ্তদের উদ্যোক্তা হতে অনুপ্রানিত করতে ঋণ দেওয়া হয়। বাংলাদেশ ব্যাংকের ১০০ কোটি টাকার নতুন উদ্যোক্তা তহবিল থেকে এ ঋণের ব্যবস্থা করা হয়।

স্কিলস ফর এমপ্লয়মেন্ট ইনভেস্টমেন্ট প্রোগ্রাম এ যাঁরা আবেদন করতে পারবেন

স্নাতক

স্নাতক পাস প্রার্থী অংশ নিতে পারবে সোয়েটার, নিটওয়্যার অ্যান্ড ওভেন মার্চেন্ডাইজিং কোর্সে।

এইচএসসি বা কম্পিউটার সায়েন্সে ডিপ্লোমা

ওয়েবসাইট ডিজাইন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট, আইটি মেইনটেন্যান্স অ্যান্ড সার্ভিসিং, অটোমোবাইল মেকানিক, প্রফেশনাল ফ্রিল্যান্সিং ও গ্রাফিক ডিজাইন কোর্সে অংশ নিতে পারবেন এইচএসসি বা সিএসইতে ডিপ্লোমা উত্তীর্ণরা।

এসএসসি

এসএসসি উত্তীর্ণরা প্রশিক্ষণ নিতে পারবে ড্রেস মেকিং অ্যান্ড টেইলারিং, কোয়ালিটি কন্ট্রোল ম্যানেজমেন্ট ইন আরএমজি এবং ইন্ডাস্ট্রিয়াল ইলেকট্রিক্যাল মেইনটেন্যান্স কোর্সে।

অষ্টম শ্রেণী

লেদ মেশিন অপারেশন ও অটোমোবাইল মেকানিক কোর্সে অংশগ্রহণের জন্য অষ্টম শ্রেণি পাস হতে হবে।

প্রফেশনাল ফ্রিল্যান্সিং ও গ্রাফিক ডিজাইন কোর্সে অংশগ্রহণের জন্য বয়স ন্যূনতম ২০ বছর হতে হবে। সোয়েটার, নিটওয়্যার অ্যান্ড ওভেন মার্চেন্ডাইজিং কোর্সে বয়সসীমা ২১ থেকে ৪৫ বছর। অন্য সব কোর্সে ১৮ থেকে ৪৫ বছর বয়সীরা অংশ নিতে পারবেন। প্রতিটি কোর্সে প্রতি ব্যাচে ২৫ জন শিক্ষার্থী ভর্তির সুযোগ পাবেন।

আবেদন প্রক্রিয়া ও অন্যান্য তথ্য

কোর্স শুরুর আগে বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বিভিন্ন মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হয়। বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখিত নিয়মানুযায়ী আবেদন করতে হবে।  প্রশিক্ষণে ১৫ শতাংশ আসন  নারী, প্রতিবন্ধী ও অনগ্রসর এলাকার মানুষের জন্য বরাদ্দ থাকবে। এ ছাড়া অনলাইনে প্রশিক্ষণসংক্রান্ত তথ্য জানা যাবে বাংলাদেশ ব্যাংকের ওয়েবসাইট (www.bb.org.bd), অর্থ মন্ত্রণালয়ের সেপ প্রকল্পের ওয়েবসাইট (www.seip-fd.gov.bd), প্রশিক্ষণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর ওয়েবসাইট এবং বাংলাদেশ ব্যাংকে সরাসরি ফোনের মাধ্যমে।

ফোবানি/হামিদ

ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন