হঠাৎ করে পরিবহন ধর্মঘট ডাকায় যাত্রী ভোগান্তি চরমে ! থমকে পড়েন নগরবাসী!

22
hotath_poribahan_dormoghat

সারাদেশের স্কুল-কলেজে চলছে বার্ষিক বা সমাপনী পরীক্ষা। এমন একটি সময়ে হঠাৎ করে পরিবহন ধর্মঘট ডাকা হয়েছে। হঠাৎ করে অনিদ্দিষ্টকালের এই পরিবহন ঘর্মঘটে যাত্রী ভোগান্তি চরমে উঠে। বলা যায় আজকের এই ধর্মঘট সম্পর্কে নগরবাসীর কোন প্রস্তুতিই ছিলো না।

তামান্না ক্লাস নাইনে ডা: খাস্তগীর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়ে। বসবাস করে হালিশহরের সবুজবাগ এলাকায়। স্কুলে যাবে বলে বাসা থেকে বের হয় ৪০ মিনিট হাতে রেখে। কিন্তু একি রাস্তায় একটিও পরিবহন নেই। অন্যদিন একই সময় বের হয়ে টেম্পো চড়ে প্রথমে দেওয়ান হাট এবং দেওয়ান হাট থেকে আবার টেম্পো ধরে সোজা জামালখান। এটা তাঁর প্রতিদিনের রুটিন। কোন সমস্যাই হয়না। না, কোনভাবেই কোন পরিবহন পাচ্ছে না। অগ্যতা বাবাকে ফোন করে। সন্তানের ফোন পেয়ে বাবা অফিসের কাজ ফেলে ছুটে আসেন মেয়ের পাশে এবং সিএনজি ভাড়া করে মেয়েকে স্কুলে পৌছে দিয়ে আবার অফিসে পৌছান।

রুমানা হাবিব একটি বেসরকারি কোম্পানীতে চাকরী করেন। প্রতিদিনের মতো অফিসের উদ্দেশ্যে বাসা থেকে বের হন। কিন্তু একি! রাস্তায় কোন যানবাহন নেই। হঠাৎ করে পরিবহন ধর্মঘট ডাকায় এই অবস্থা! সবকিছু বুঝে উঠতেই হাতে থাকা সময় এক ঘন্টা পেরিয়ে যায়। অবশেষে কোন উপায় নো দেখে রিক্সায় প্রায় ৪গুন অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে গন্তব্যে পৌছান।

একজন পুষ্টিবিদ কত টাকা ফি নিতে পারেন? ফি নির্ধারনের দায়িত্বটা কার? 

চট্টগ্রাম নগরজুড়ে আজ সারাদিন চলে এই অবস্থা। চট্টগ্রাম মহানগরে হঠাৎ অনির্দিষ্টকালের পরিবহণ ধর্মঘট ডাকে যানবাহন মালিকদের একাংশ। ফলে আজ ভোর থেকে চরম দুর্ভোগে পড়ে নগরীর চাকুরীজীবি, ব্যবসায়ী, পেশাজীবিসহ সাধারন মানুষ। প্রতিদিনের মতো আজ রবিবার সকাল সাড়ে ৮টায় চট্টগ্রাম ইপিজেডের ইয়ংওয়ান কারখানার সুপারভাইজার জসিম উদ্দিন নগরীর বহদ্দারহাটের নিজ বাসা থেকে বেরিয়ে চাকুরীস্থলে যাওয়ার অপেক্ষা করছিলেন। কিন্তু সড়কে যানবাহন না থাকায় সকাল ১১টায়ও তার অপেক্ষার পালা শেষ হয়নি। হঠাৎ পরিবহণ ধর্মঘটে দুর্ভোগের কথা বলে ক্ষোভ প্রকাশ করেন তিনি। একই সাথে বহদ্দারহাট মোড়ে নগরীর বিভিন্ন এলাকায় বেসরকারি কারখানা ও সরকারি অফিসে ছুটে চলা মানুষ হঠাৎ ধর্মঘটে বিস্ময় প্রকাশ করেন। আর এ সুযোগে প্যাডেল চালিত রিকশা চালকরা তিগুণ-চারগুণ ভাড়া হাঁকাচ্ছেন বলে জানান ভুক্তভোগীরা।

ব্যাটারীচালিত রিক্সা চলবে ১৫ মে পর্যন্ত! শেষ পর্যন্ত নিষিদ্ধ হবে ইজিবাইক!!

অনিদ্দিষ্টকালের জন্য হঠাৎ করে ধর্মঘট পালনকারী পরিবহণ মালিক সংগঠনের দায়িত্বশীল সূত্রে জানা যায়, পুলিশি হয়রানি বন্ধ, অনুমোদন ও ফিটনেসবিহীন যানবাহন বন্ধের দাবিসহ আরো সুনিদ্দিষ্ট ১১টি দাবিতে অনির্দিষ্টকালের এই পরিবহন ধর্মঘটে নামতে বাধ্য হয়েছেন। তবে পূর্বঘোষনা ছাড়াই পরিবহণ ধর্মঘট শুরু করার কারণ ও উদ্দেশ্য সম্পর্কে জানতে চাইলে চট্টগ্রাম মেট্রো গণপরিবহন মালিক সংগ্রাম পরিষদের আহ্বায়ক পরিচয় দিয়ে বেলায়েত হোসেন বেলাল বলেন, সংগঠনের সিদ্ধান্তে হঠাৎ করে পরিবহণ ধর্মঘট শুরু করা হয়েছে। এতে যাত্রী সাধারণকে কষ্ট দেয়ার কোন উদ্দেশ্য তাদের নেই!

 

জে, জাহিদ


বিশেষ প্রতিবেদক

ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন