সোস্যাল মিডিয়া মার্কেটিং কেন করবেন ? কিভাবে করবেন?

সোস্যাল মিডিয়া মার্কেটিং প্রেক্ষাপট থেকে আপনার লক্ষ্য হতে পারে: ১। আপনার পণ্য এবং প্রতিষ্ঠান এর পরিচিতি বৃদ্ধি ২। আপনার পণ্যের ভাল দিকগুলো তাদের কাছে তুলে ধরা ৩। আপনার পণ্য বিক্রি করা ৪। ক্রেতার সাথে সুসম্পর্ক তৈরী করা, যাতে তারা পুনরায় পন্যক্রয় করতে আসেন এছাড়াও..

194
why_and_how_do_social_media_marketing

সোস্যাল মিডিয়া মার্কেটিং কেন করবেন ? কিভাবে করবেন?

সোস্যাল মিডিয়া মার্কেটিং বিষয়টা এখন অত্যন্ত সময়োপযোগী ও আপনার ব্যবসার প্রচারে গুরুত্বপূর্ন । ইন্টারনেট ব্যবহার করেন কিন্তু সোস্যাল মিডিয়া বিশেষ করে ফেসবুক সম্পর্কে জানেন না এমন কাউকে খুজে পাওয়া বর্তমান সময়ে সত্যিই কঠিন।

ঢেকি সর্গে গেলেও ধান ভানে, উদ্যোক্তারা অনেকটা ঢেকির মত। তারা সবসময় ব্যবসা এবং এর প্রসার নিয়ে ভাবে।একজন সফল উদ্যোক্তার সবচাইতে বড় গুন হচ্ছে সে থেমে থাকেনা, যখন কোন সমস্যা আসে তখন ব্যাস্ত থাকে সমস্যা সমাধানের জন্য।আর যখন কোন সমস্যা না আসে তখন ব্যাস্ত থাকে নতুন নতুন এক্সপেরিমেন্টের জন্য।আর এই স্বভাবের জন্যই পৃথিবীতে ছোট ছোট অনেক স্টার্টআপ আজ অনেক বড় হয়েছে।নতুন নতুন আইডিয়া জেনারেট হয়েছে।

ফেসবুকসহ অন্যান্য সোস্যাল মিডিয়া গুলো এরকম আইডিয়ারই ফসল। আজ সোস্যাল মিডিয়া ছাড়া আমারা আমাদের জীবন চিন্তাই করতে পারিনা। বাংলাদেশের প্রায় ৭৫লক্ষ ফেসবুক ব্যাবহারকারি রয়েছে এবং এই সংখ্যা দ্রুতগতিতে বৃদ্ধি পাচ্ছে। তাই আপনার যদি সোসায়াল মিডিয়া ছাড়াই পর্যাপ্ত ক্রেতা থাকে, তবুও সোসায়াল মিডিয়া মার্কেটিং এর দিকে আপনার নজর দেয়া উচিত। এটা আপনার ব্যাবসার প্রসার কয়েক গুন বাড়িয়ে দিতে পারে। আর যদি আপনার পর্যাপ্ত ক্রেতা না থাকে তাহলে সোসায়াল মিডিয়া মার্কেটিং হতে পারে কম খরচে পর্যাপ্ত ক্রেতা পাওয়ার উপযুক্ত মাধ্যম।

সোস্যাল মিডিয়া মার্কেটিং প্রেক্ষাপট থেকে আপনার লক্ষ কি হতে পারে?

  • আপনার পণ্য এবং প্রতিষ্ঠান এর পরিচিতি বৃদ্ধি।
  • মানুষকে আপনার ব্যাবসা প্রতিষ্ঠান অথবা ওয়েবসাইট এ আসতে উৎসাহিত করা।
  • আপনার পণ্যের ভাল দিকগুলো তাদের কাছে তুলে ধরা।
  • আপনার পণ্য বিক্রি করা।
  • ক্রেতার সাথে সুসম্পর্ক তৈরী করা, যাতে তারা পুনরায় পন্যক্রয় করতে আসেন।
  • ক্রেতা যাতে তার পরিচিত জনদের কাছে আপনার প্রতিষ্ঠান / পন্য এর প্রশংসা করে তার ব্যাবস্থা করা।
  • আপনার নতুন নতুন পণ্য  অথবা বিশেষ অফার গুলো আপনার ক্রেতা অথবা সম্ভাব্য ক্রেতাদের নিকট পৌছে দেয়া।
  • আর সবশেষে তাদের কোন প্রশ্ন, অভিযোগ থাকলে তারা যেনো সেটা আপনাকে সহজেই জানাতে পারেন, এবং আপনি সেই অনুযায়ী ব্যাবস্থা নিতে পারেন সে ব্যবস্থা করা।

এছাড়াও ছোট বড় আপনার আরো অনেক লক্ষ থাকতে পারে। ব্যাবসার ধরন এবং মাপের উপর ভিত্তি করে আপনার লক্ষ, প্লান এবং এক্সিকিউশন ভিন্ন হতে পারে। সোস্যাল মিডিয়া মার্কেটিং কেন করবেন তার কিছু কারন এখন বর্ননা করছি।

সোস্যাল মিডিয়া মার্কেটিং ও পরিচিতি বৃদ্ধি

যে কোন মার্কেটিং ক্যম্পেইন এর একটি মূল উদ্যেশ্য হচ্ছে কোন পণ্য বা প্রতিষ্ঠানের পরিচিতি বৃদ্ধি করা। নতুন নতুন অফার গুলোকে প্রচার করা। সম্ভাব্য সবক্ষেত্র থেকে ক্রেতা খুজে বের করা। আপনার ব্যবসা ছোট হোক অথবা বড়, ব্যবসার সফলতা অনেকটা নির্ভর করবে আপনি কতটা পরিচিত। আপনি যত বেশী পরিচিত, আপনার ক্রেতা পাওয়ার সম্ভাবনা তত বেশী।আর আপনি যদি পরিচিতি পেতে চান আপনাকে সেখানেই একটিভ থাকতে হবে যেখানে আপনার সম্ভাব্য ক্রেতার উপস্থিতি রয়েছে। বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে টিভি, রেডিও এবং পত্রিকার পর সোস্যাল মিডিয়া বেশী জনপ্রিয়, এবং এর জনপ্রিয়তা যেভাবে বাড়ছে খুব দ্রুত এটা অন্য সবগুলাকে ছাড়িয়ে যাবে অথবা আরো বেশী জনপ্রিয় হবেতা সহজেই অনুমান করা যায়।

ফেসবুকের জনপ্রিয়তা যাচাই করার জন্য আপনি নিচে প্রদত্ত ডাটা গুলো দেখে নিতে পারেন।

২০১০ সালে ফেসবুকের নিবন্ধিত ব্যাবহারকারি ছিলেন ৩৫০ মিলিয়ন। ২০১১ সালে তা বেড়ে দারায় ৭৫০ মিলিয়ন। এ থেকেই ধারনা করা যায় মানুষ সোস্যাল মিডিয়ার উপর কি পরিমান আসক্ত হচ্ছে। তাই সোস্যাল মিডিয়া ব্যাবহার করে আপনি খুব দ্রুতই আপনার পণ্য অথবা ব্যাবসার পরিচিতি বৃদ্ধি করতে পারেন।

সোস্যাল মিডিয়া মার্কেটিং ও যোগাযোগ তৈরী

আপনি অনেক পরিচিতি পেলেন, কিছু ক্রেতাও পেলেন, কিন্তু এরমানে এই নয়যে আপনার কাজ শেষ বা আপনি সফল হয়ে গেলেন। কাজের প্রথম ধাপ সম্পন্ন হলেও সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ কাজটি আপনাকে এখনই করতে হবে। আর তা হচ্ছে ক্রেতার সাথে যোগাযোগ রক্ষা করা। তারা আপনার পণ্য বা সেবাতে সন্তুষ্ট কিনা এর উত্তর বের করা। তাদের কোন অভিযোগ অথবা পরামর্শ আছে কিনা তা জানতে চাওয়া। অথবা আপনার পণ্য এবং সেবা সংক্রান্ত যে কোন ব্যাপারে তারা কোন সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে কিনা এবং হয়ে থাকলে সেটা কি ধরনের। এই উত্তর গুলো যদি আপনি বের করতে না পারেন এবং বের করার পর যদি এর সমাধান বের করতে না পারেন তাহলে আপনি যতই প্রচারনা চালান, আপনার ব্যবসা বেশীদিন টিকে থাকবেনা ।আর এই উত্তরগুলো পাওয়ার সবচাইতে সহজ উপায় হচ্ছে সোস্যাল মিডিয়া। কারন মানুষ ফোনে অথবা সামনা সামনি অভিযোগ দেয়ার চাইতে লিখতে বেশী সাচ্ছন্দ বোধ করেন। একই ঘটনা ঘটবে প্রশংশা করার বেলায়। আবার সোস্যাল মিডিয়াতে লিখার সময় মানুষ পর্যাপ্ত সময় নিতে পারে, যা অন্য মাধ্যম গুলাতে সম্ভবনয়। তাই সোস্যাল মিডীয়াকে শুধুমাত্র প্রচারনার জন্য ব্যাবহার করা হলে তা ভুল হবে। সোস্যাল মিডিয়াকে ক্রেতা অথবা সম্ভাব্য ক্রেতার সাথে যোগাযোগ এর মাধ্যম হিসেবে ব্যবহার করতে হবে।

সোস্যাল মিডিয়া মার্কেটিং ও ভাইরাল প্রমোশন

মানুষ শেয়ার করতে ভালোবাসে এবং মানুষ চায়না কোন কিছু কিনে ঠকতে। সোস্যাল মিডিয়ার ক্ষেত্রে ব্যাপারটা আরো বেশী সত্য। মানুষ সারাদিন কি করলো, কিভাবে করলো, কোথা থেকে করলো এই ধরনের ঘটনা গুলো সবচেয়ে বেশি শেয়ার করে। এই সুযোগটাই আপনাকে কাজে লাগাতে হবে। একটা উদাহরন দেই, আমাজনে এই বড় দিনের সময় ১০০টাকায় একটি আইফোন এর অফার দিয়েছে। এই খবরটি হয়ত অনেকেই জানতেন না। একটা স্ট্যাটাস দিন, “আজ  ১০০ টাকায় ১ টা আইফোন বিক্রি হচ্ছে, হুররে! আর কিছু লাগবেনা, আপনার ফ্রেন্ডলিষ্ট থেকে কম করে হলেও ৩০-৪০ জন নতুন মানুষ এই তথ্যটা পেয়ে যাবে, তার মানে কোন খরচ ছাড়াই প্রচারনা। আর এই ৩০-৪০ জন এর থেকে যদি একজনও আমাজনে  যায় তাহলে এখানেও খরচ ছাড়াই কাষ্টমার ।এখন  আমাজনের পরিবর্তে আপনার ব্যাবসা প্রতিষ্ঠানকে ভাবুন, আপনিও একইভাবে সুবিধা পেয়ে যেতেন।

সোস্যাল মিডিয়া মার্কেটিং ও পণ্য অথবা সেবা বিক্রি করা

প্রচারনা আর যোগাযোগের মাধ্যম হিসেবেই নয় আপনি চাইলে ফেসবুকের মাধ্যমেও আপনার পণ্যবিক্রি করতে পারবেন। শপিফাই ইতিমধ্যেই ফেসবুকের মাধ্যমে বিক্রি করার সুবিধা দিচ্ছে। তাই একই মিডিয়াতে যদি প্রচারনা, যোগাযোগ এবং বিক্রি করা যায় তাহলে একে পাশ কাটিয়ে যাওয়ার মানে হচ্ছে নিজের ব্যাবসার অনেক গুলো সুযোগ নিজ হাতে বন্ধ করে দেয়া।

একজন ব্যাবসায়ী হিসেবে আপনার কাজ হচ্ছে আপনার ক্রেতার সবচাওয়া, সব সুবিধা তাদের হাতের কাছেই রাখা, আর তা করতে হলে আপনাকে সোস্যাল মিডিয়া মার্কেটিং গুরুত্বের সাথে নিতে হবে। আপনাকে সোস্যাল মিডিয়া মার্কেটিং এর কৌশল গুলো জানতে হবে। তাহলেই আপনি এই চ্যানেল থেকে পর্যাপ্ত সুবিধা নিতে পারবেন, আপনার ব্যাবসার প্রসার ঘটাতে পারবেন।

আজ আর নয়, সামনে সোস্যাল মিডিয়া মার্কেটিং এর কৌশল গুলো নিয়ে লিখব। পরবর্তী লিখা গুলো ইনবক্স এ পেতে সাবস্কাইব করুন। আর আপনার মতামত কমেন্ট এর মাধ্যমে তুলে ধরুন, আপনার মুল্যবান মতামত আমাকে এবং অন্যকেও হয়তো সাহায্য করবে।

কৈফিয়ত:ব্যবহৃত ছবি ও লেখার উৎস ইন্টারনেট।

ফোবানি/হামিদ

ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন