সরকারি সিটি কলেজ নতুন রেকর্ড গড়ল ৬০তম ব্যাচ

64
govt_city_college

সরকারি সিটি কলেজ ডিগ্রি পাস কোর্সের ৬০তম ব্যাচের বিদায় উৎসব কলেজ অডিটোরিয়ামে আয়োজন করা হয়। এ উপলক্ষ্যে একটি র‌্যালি নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিন করে। র‌্যালি শেষে কলেজ ক্যাম্পাসে আলোচনা সভায় বিদায়ী শিক্ষার্থীদের সাফল্য ও ভবিষ্যত কর্মক্ষেত্রে সফলতা কামনা করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন অধ্যক্ষ ঝর্না খানম।

দীর্ঘ দিন পর সরকারি সিটি কলেজ এর পাস কোর্স হতে এটিই ছিল অন্যতম শ্রেষ্ঠ সফল একটি অনুষ্ঠান।

এ উপলক্ষে গত ১৪ নভেম্বর মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় কলেজ ক্যাম্পাস থেকে বিদায়ী র‌্যালি বের করা হয়।

র‌্যালিটি নগরীর নিউ মার্কেট হয়ে আমতল এলাকা পর্যন্ত প্রদক্ষিণ করে পুনরায় কলেজ ক্যাম্পাসে এসে আলোচনা সভার মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের প্রথম অধিবেশন শেষ হয়।

দুপুরের ভোজনের পর শুরু হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

আলোচনায় অংশ নিয়ে বক্তব্য রাখেন সরকারি সিটি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ঝর্ণা খানম, শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মো: ইলিয়াছ, শিক্ষক ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক, সরকারী সিটি কলেজ ছাত্র সংসদের বৈকালিক শাখার ভিপি রাজীব হাসান রাজন, জিএস জাহেদুল হক মার্শাল এবং কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এম.রাশেদ চৌধুরী কলেজ ছাত্রলীগ নেতা মোঃ আলী মিঠু।

বক্তারা সিটি কলেজের ৬০তম ব্যাচের উজ্জ্বল  ভবিষ্যৎ কামনা করেন এবং দেশের খেদমতে ছড়িয়ে পড়ার আহ্বান জানান। অত্যান্ত সুন্দর ও সুশৃঙ্খল ভাবে অনুষ্ঠান সম্পন্ন করার জন্য সবাইকে অভিনন্দন ও ধন্যবাদ জানান।

এতে আরোও উপস্থিত ছিলেন কলেজ ছাত্রলীগ নেতা শুভ,  জি.এস.এম বাবু,  আবদুল হাবিব বাপ্পী, সাজু বিশ্বাস, অভি শীল, আরমান সাজিদ, মো: জুবায়ের হোসেনসহ প্রমুখ।

বিদায়ী শিক্ষার্থীদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ডিগ্রি পাস কোর্সের ৬০তম ব্যাচের শিক্ষার্থী এবং কলেজ ছাত্রলীগ নেতা এম.এইচ. ফয়সাল, শহিদুল ইসলাম বিজয়, মোঃ আব্দুর রহিম আকাশ, মোঃ মামুন।

অনুষ্ঠান সনঞ্চালনা করেন, মোঃ আব্দুর রহিম আকাশ, সুমন দাশ, মোঃ অনিক।

সার্বিক তত্বাবধানে করেন মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন, সাজ্জাদুল বশার চৌধুরী,

মো: আনিছুর রহমান হৃদয়,  অরুপ দাশ, মো: কামরুল হাসান, গোলাম হোসেন সাদ্দাম, মিঠুন দেব বর্মন, মিসবাহ চৌধুরী, হায়দার আলী সজীব, মোঃ রাসেল,মোঃ তারেক, মোঃ সাকিব সহ প্রমুখ।

উপস্থিত সবাই এম, এইচ, ফয়সাল ও শহিদুল ইসলাম বিজয়ের নিরলস পরিশ্রম ও নিখুত পরিচালনার কৃতঘ্নতা স্বীকার করেন।

জে, জাহেদ


চট্টগ্রাম থেকে

ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন