মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ! ২০ হাজার পিচ ইয়াবা, একটি মিনি ট্রাক ও আসামী গ্রেফতার

চট্টগ্রাম ডিবির সিনিয়র সহকারি পুলিশ কমিশনার মোঃ মঈনুল ইসলাম এর নেতৃত্বে

39
madoker-biruddhe-gero-tolerance

“মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স” “প্রয়োজনে জঙ্গিবাদের মতো মাদক নির্মূল করা হবে” এমনই ঘোষনা দিয়েছিলেন আইজিপি ড. মোহাম্মদ জাভেদ পাটোয়ারী। তিনি বলেন, “মাদক একটি সামাজিক সমস্যা প্রয়োজনে জঙ্গিবাদের মতো সকলকে সাথে নিয়ে মাদকের মোকাবেলা করবো। মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষনা করেন তিনি।” নগরীর দামপাড়াস্থ পুলিশ লাইনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

আইজি ড. মোহাম্মদ জাভেদ পাটোয়ারী কর্তৃক মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষনার একদিন যেতে না যেতেই এবার এ্যাকশনে নেমেছে চট্টগ্রাম ডিবি পুলিশ। চট্টগ্রামের ডবলমুরিং থানাধীন ডিটি রোডস্থ বাইতুশ শরফ ইউসিবিএল ব্যাংকের নীচে জিলানী মার্কেট এর সামনে থেকে চট্টগ্রাম ডিবির সিনিয়র সহকারি পুলিশ কমিশনার মোঃ মঈনুল ইসলাম এর নেতৃত্বে অভিযান পরিচালনা করে ২০,০০০পিচ ইয়াবা ট্যাবলেট ও ১টি মিনি ট্রাক (ঢাকা মেট্রো ড ১২-০৬৬৫) সহ ৩ (তিন) আসামীকে গ্রেফতার করেছে মহানগর ডিবি পুলিশ।

গ্রেফতারকৃত আসামী মোঃ কামরুল ইসলাম (২১) পিতা মৃত মোস্তাক আহম্মেদ, মাতা ফাতেমা বেগম,সাং পুর্ব মরিচ্যা, উখিয়া, কক্সবাজার, আলা উদ্দিন (১৯) পিতা গফুর ড্রাইভার, মাতা মৃত খোরশেদা বেগম, সাং পুর্ব মরিচ্যা, টেকনাফ, কক্সবাজার, আবু তাহের (৩২) ড্রাইভার পিতা মৃত দেওয়ান আলী, মাতা মৃত বিলকিস খাতুন,সাং পুর্ব মরিচ্যা, উখিয়া, কক্সবাজার।

নির্ভযোগ্য সূত্রে জানা যায়, ৫ মার্চ ২০১৮ ইং দিবাগত রাত ১:৩০মিনিটের সময় মহানগর গোয়েন্দা বিভাগের উপ পুলিশ কমিশনার (ডিবি বন্দর) মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ পিপিএম এর সার্বিক তত্বাবধানে ও দিকনির্দেশনায় সিনিয়র সহকারি পুলিশ কমিশনার (ডিবি পশ্চিম) মোহাম্মদ মঈনুল ইসলাম এর নেতৃত্বে পুলিশ পরিদর্শক কামরুজ্জামান, এএসআই শন্তু শীল, এএসআই দর্পন কুমার চৌধুরী ও সঙ্গীয় ফোর্স সহ গোপস সংবাদের ভিত্তিতে চট্টগ্রামের ডবলমুরিং থানাধীন ডিটি রোডস্থ বাইতুশ শরফ ইউসিবিএল ব্যাংকের নীচে জিলানী মার্কেট এর সামনে অভিযান পরিচালনা করে ২০ হাজার পিচ ইয়াবা ট্যাবলেট ও ১টি মিনি ট্রাক সহ ৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত আসামীদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, ইয়াবা পাচারে এ চক্রটি দীর্ঘদিন যাবৎ কক্সবাজার জেলার টেকনাফ হতে চালকের সহায়তায় নিজ মিনি ট্রাক ব্যবহার করে ঢাকা চট্টগ্রামে ইয়াবা সরবরাহ করছিলো। পুলিশের চোখ ফাঁকি দিতে পচা মাছ পরিবহনের আড়ালে ইয়াবা পাচার কাজ সম্পন্ন করে আসছিলো।

ডিবির জনসংযোগ কর্মকর্তার সূত্রে জানা যায়,গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে ডবলমুরিং থানায় নিয়মিত মামলা রুজু করা হয়েছে।

বাংলাদেশ পুলিশ প্রধান আইজিপি ড. মোহাম্মদ জাভেদ পাটোয়ারী মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্সের ঘোষনা এবং ২০ হাজার পিচ ইয়াবা, একটি মিনি ট্রাক ও ৩ আসামী গ্রেফতারের সংবাদে চট্টগ্রামের নাগরিক সমাজে মাদক পাচার রোধে পুলিশের কাজে আস্থা ফিরে আসছে বলে সংশ্লিষ্টগন মনে করেন।

ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন