মহাসড়কে ডাকাতির ঘটনায় র‌্যাবের গুলিতে একজন নিহত

60
rab-dakat-bonduk-joddho

চট্টগ্রামের সীতাকুন্ডে র‌্যাবের সাথে সংঘবদ্ধ ডাকাত দলের গুলি বিনিময়ের ঘটনা ঘটেছে বলে নির্ভরযোগ্য সূত্রে খবর পাওয়া গিয়েছে। আজ শুক্রবার ভোর রাত সাড়ে ৩টায় সীতাকুন্ড উপজেলার কুমিরা ইউনিয়নে বন্দুক যদ্ধের এই ঘটনা ঘটে।নিহত ডাকাতের নাম পরিচয় এখনো জানা যায়নি।

ঘটনার বিবরনে জানা যায়,চট্টগ্রামের হাটহাজারী থেকে মাইক্রোবাস যোগে লাকসামে ফিরছিলেন ২১ বরযাত্রী। রাত সাড়ে ৩টার সময় কুমিরা বাইপাস এলাকায় মাইক্রোবাসটি পৌছালে ডাকাত দলের ৬/৭ জনের দলটি মাইক্রোবাসের গতি রোধ রোধ করে। অস্ত্রের মুখে ২১ বরযাত্রীর কাছে থাকা সর্বস্ব লুটে নেয় ডাকাত দল। বরযাত্রীর দলটি মাইক্রোবাসটি রাস্তায় দাড় করিয়ে ঘটনার আকস্মিকতায় কিংকর্তব্যবিমুড় হয়ে পড়ে। এ সময় মহাসড়কে টহলে থাকা র‌্যাবের নজরে পড়েন বরযাত্রীর দলটি। র‌্যাবকে সার্বিক বিষয়ে তথ্য দিয়ে অভিযোগ করেন বরযাত্রীরা।

খবর পেয়ে র‌্যাবের সদস্যরা দ্রুতই ঘটনাস্থলে ছুটে যান এবং খুঁজতে থাকেন। হঠাৎ র‌্যাবকে পিছু নিতে দেখে ডাকাত দলের লোকজন গুলি ছুড়তে থাকে। র‌্যাবও গুলি ছোড়ে। দু’পক্ষের গোলাগুলির সময় ডাকাত দলের একজন গুলিতে আহত হয় এবং অন্য ডাকাতরা পালিয়ে যায়।

এ বিষয়ে খবর নিতে যোগাযোগ করলে র‌্যাব-৭ এর সহকারী পরিচালক(মিডিয়া) মিমতানুর রহমান জানান,“ রাতে বড় কুমিরার ব্রীজ এলাকায় হাটহাজারী থেকে আসা একটি বরযাত্রীবাহী গাড়িতে হানা দেয় সংঘবদ্ধ ডাকাত দল। এ সময় গাড়ীতে থাকা বরযাত্রীদের মারধর করে নগদ টাকাসহ মালামাল লুট করে নিয়ে যায়।ঘটনার সময় পালিয়ে গিয়ে একজন বরযাত্রী মহাসড়কে টহলরত র‌্যাবকে বিষয়টি জানালে র‌্যাব প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়।”

গোলাগুলি থামলে ডাকাত দলের অজ্ঞাত সদস্যকে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়।

সর্বশেষ খবরে জানা যায়, ডাকাতির ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছিলো।

জে, জাহেদ


ফোকাস বাংলা নিউজ

ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন