চট্টগ্রামে পুলিশ মেমোরিয়াল ডে ২০১৮ উদযাপন

48
police-memorial-day

চট্টগ্রামে পুলিশ মেমোরিয়াল ডে ২০১৮ উপযাপিত হয়েছে। বন্দর নগরী চট্টগ্রামের দামপাড়াস্থ পুলিশ লাইনে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন প্রধান আলোচক সিএমপি কমিশনার মো. ইকবাল বাহার বিপিএম, পিপিএম, মাসুদ-উল-হাসান, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (প্রশাসন ও অর্থ), সিএমপি, চট্টগ্রাম, কুসুম দেওয়ান, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক), সিএমপি, চট্টগ্রাম, জনাব মোহাম্মদ মুসলিম, পিপিএম, অতিঃ ডিআইজি, ট্যুরিস্ট পুলিশ, চট্টগ্রাম বিভাগ, চট্টগ্রাম, এস এম রোকন উদ্দিন (প্রশাসন ও অর্থ), অতিঃ ডিআইজি, চট্টগ্রাম রেঞ্জ, চট্টগ্রাম, সহ চট্টগ্রাম পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ, মুক্তিযোদ্ধা, অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্যগণ, মৃত্যুবরণকারী পুলিশ সদস্যদের পরিবারবর্গ।

দেশের আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা, অপরাধ দমন এবং অপরাধীদের গ্রেফতারসহ দেশের অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা বিধান করার ক্ষেত্রে বাংলাদেশ পুলিশ সদস্যগণ অত্যন্ত গৌরবোজ্জ্বল ভূমিকা পালন করে থাকে। যে কোন জাতীয় দুর্যোগে পুলিশ বাহিনীর সদস্যগণের ধৈর্য্য, নিষ্ঠা ও দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ কার্যক্রম সকল মহলে প্রশংসিত। কর্তব্য পালন করতে গিয়ে প্রতি বছর অনেক পুলিশ সদস্য নিহত হয়। দায়িত্ব পালনকালে তাঁরা আত্মত্যাগের যে মহান দৃষ্টান্ত স্থাপন করেন তা গোটা পুলিশ বাহিনীকে গৌরবান্বিত করে। কর্তব্যরত অবস্থায় নিহত বাংলাদেশ পুলিশের ঐ সকল সদস্যদের আত্মত্যাগ ও গৌরবময় অবদানকে স্মরণ করতে প্রতিবছর দেশব্যাপী সমস্ত পুলিশ ইউনিটে ০১ মার্চ পুলিশ মেমোরিয়াল ডে পালনের সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে দ্বিতীয়বারের মত অনুষ্ঠিত হলো পুলিশ মেমোরিয়াল ডে ২০১৮।

দামপাড়া পুলিশ লাইনে অনুষ্ঠিত সম্মাননা প্রদান ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার, উপ-উপাচার্য, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যায়ল, প্রধান আলোচক সিএমপি কমিশনার মো. ইকবাল বাহার বিপিএম, পিপিএম, মাসুদ-উল-হাসান, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (প্রশাসন ও অর্থ), সিএমপি, চট্টগ্রাম, কুসুম দেওয়ান, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক), সিএমপি, চট্টগ্রাম, জনাব মোহাম্মদ মুসলিম, পিপিএম, অতিঃ ডিআইজি, ট্যুরিস্ট পুলিশ, চট্টগ্রাম বিভাগ, চট্টগ্রাম, এস এম রোকন উদ্দিন (প্রশাসন ও অর্থ), অতিঃ ডিআইজি, চট্টগ্রাম রেঞ্জ, চট্টগ্রাম, সহ চট্টগ্রাম পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ, মুক্তিযোদ্ধা, অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্যগণ, মৃত্যুবরণকারী পুলিশ সদস্যদের পরিবারবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

দিনের কর্মসূচীর শুরুতে সকাল ১০টায় সশস্ত্র অভিবাদনসহ মৃত্যুবরণকারী পুলিশ সদস্যদের স্মরণে নির্মিত স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। আলোচনা সভার শুরুতে মৃত্যুবরণকারী পুলিশ সদস্যদের স্মরণে এক মিনিটি নিরবতা ও আত্মার মাগফেরাত কামনায় দোয়া-মোনাজাত করা হয়।

প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যে বলেন, বাংলাদেশ পুলিশ সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান। নিজ ডিউটিতে নিয়োজিত থাকাকালীন কোন সদস্যের মৃত্যু অত্যন্ত বেদনাধায়ক। মৃত্যুবরণকারী পুলিশ সদস্যদের পরিবারের সাথে এমন একটি অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করে তিনি গর্ব অনুভব করছেন। সিএমপি কমিশনার মহোদয় বলেন, কর্তব্যরত অবস্থায় মৃত্যুবরণকারী পুলিশ সদস্যরা দেশ, জাতি ও পুলিশের গৌরব এবং মৃত্যুবরণকারী পুলিশ সদস্যদের পরিবারবর্গ বাংলাদেশ পুলিশের বৃহৎ পরিবারের অংশ। কমিশনার মহোদয় যেকোন অবস্থায় তাদের পাশে থাকার আশ্বাস প্রদান করেন।

আলোচনা সভা শেষে নিহত পুলিশ সদস্যদের পরিবারের মধ্যে মরণোত্তর সম্মাননা ক্রেস্ট, সনদ ও আর্থিক সহায়তা সহ শুভেচ্ছা উপহার সামগ্রী হস্তান্তর করা হয়। আপ্যায়নের মধ্য দিয়ে সমাপ্ত হয় দ্বিতীয়বারের পুলিশ মেমোরিয়াল ডে ২০১৮ এর কর্মসূচী।

জে. জাহেদ


বিশেষ প্রতিবেদক

ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন