পিতা বলেই তিনি যুদ্বে হেরে যাবেন না

199
a_father_need_help

একজন পিতা বলেই হয়তো সর্বস্ব বিক্রি করে নিজের সাধ্যের সবটুটু দিয়ে লড়াই করে চলেছেন। হয়তো লড়াই করে যেতে হবে আরো অনেকটা পথ। কিন্ত একজন পিতা বলেই কি দায়টা তার? না, আমরা অনেকেই এভাবে ভাবিনা। ভাবিনা বলেই একমাত্র ছেলে মো: নাজমুল হাসান ভুইয়ার পিতা এরশাদুর রহমানকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলেন শত শত পিতা।

দানের কথা বলতে নেই। কিন্ত দানের কৃতজ্ঞতাটুকু ঠিকই প্রকাশ করে গেছেন এই পিতা। কাপ্তাই  স্কুলের এই প্রাক্তন শিক্ষার্থী সুইডেন পলিটেকনিক ইনিষ্টিটিউট, কাপ্তাই থেকে ডিপ্লোমা ইন্জিনিয়ারিং শেষ করে পাবনা টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজে কর্মরত। হঠাৎ করেই ছেলের অসুখটি ধরা পড়ে। নিজের সর্বস্ব দিয়ে লড়েছেন, একসময় প্রাক্তন শিক্ষার্থী, সহকর্মী, বন্ধু. আত্মীয়-পরিজন, নাম না জানা অনেকেই এগিয়ে আসেন। সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন।

ভারতের চেন্নাই শহরে উন্নত চিকিৎসা বোন ম্যারো ট্রান্সপ্লান্ট (নামটা শুনেই কেমন কেমন লাগে,ছোট্ট একটা শরীরে কাটাছেঁড়া!)শেষে সন্তানকে নিয়ে হাসিমুখে ফিরেও এসেছিলেন এই পিতা কিন্তু বিধাতা এমন কেন?

‘জো মরদ হোতা,উসকো দরদ নেহি হোতা।’ হিন্দি সিনেমার জনপ্রিয় এই ডায়লগের মতো এই পিতা আজ নি:স্ব। কোন দরদ ছাড়াই এরশাদুর রহমান আজ বাক শক্তিহীন। প্রথমবার ইন্ডিয়ার ভালোরে চিকিৎসা করাতেই ব্যয় হয় ৬০,০০,০০০.০০ (ষাট লক্ষ) টাকার অধিক।

সর্বশেষ খবর হঠাৎ করেই নাজমুল হাসান আবার অসুস্থ। গত ২৭/০২/১৭ ইং তারিখে ছেলের জ্বর হয়। ১০৫ ডিগ্রি জর । জ্বরের পর থেকেই কাউকে চিনতে পারছেনা, কথা বলতে পারছে না। বাংলদেশ থেকে ৮/৩/১৭ ইং তারিখে ছেলেক নিয়ে ভারতের তামিল নাডু CMC Vellore নিয়ে যান। পরীক্ষা নিরিক্ষা চলে। রিপোর্ট আসে ‘ব্রেইনে ইনফেকশন’ আছে।

এরশাদের মুখেই শুনুন,‘ কি করবো ঠিক বুঝে উঠতে পারছি না। চিকিৎসা করাতে হবে কিন্তু জানি খুবই  ব্যয়বহুল এই চিকিৎসা। কই পাবো এতো টাকা’! কথা আর বাড়তে পারে না। কেঁদে ফেলেন। কান্না থামিয়ে বলেন,‘হঠাৎই ভাবি কাউকে কিছু না বলে পালিয়ে যাই। কিন্ত যাবোটা কোথায়? মন মানে না। চেষ্টা করতে দোষ কি

‘চেষ্টা করেত দোষ কি’- দারুন ভেবেছেন। আমরা এই পিতার চেষ্টায় শরীক হতে চাই। যে যার অবস্থান থেকে চেষ্টাটাই করতে চাই। বিধাতা যেমনই হোক আমরা আমাদের মানবতাবোধের দায়িত্বের অংশটুকু সারতে চাই আবারও।

a_letter_to_Allahভাবছেন আমাকে কি করতে হবে? কিছুই করতে হবে না। একজন পিতা হাত বাড়িয়েছেন, সাহায্যের জন্য। আসুন সবাই সাধ্যমতো সাহায্য করি। সাহায্য পাঠাবার ঠিকানা:

Md. Earshadur Rahman Bhuiyan. Dutch Bangla Bank, A/C No : 169.101.3786 Pabna Branch, Pabna.

বিকাশ নাম্বার : 01815 424502 Personal মো: হাবিবুর রহমান (অসুস্থ ছেলের মামা)

এরশাদুর রহমান ভুইয়ার ফেসবুক এ্যাকাউন্ট এটি ক্লিক করুন। আর কিছু না পারেন অন্তত: ১০টি টাকা হলেও বিকাশ করুন। লাইক নয় মন্তব্য সহকারে শেয়ার করুন। আপনার-আমার সহযোগিতাই পারে একটি নিষ্পাপ শিশুকে একজন পিতার কোলে ফিরিয়ে দিতে।

ফোবানি/হামিদ

ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন