জাবিতে উপাচার্য বিরোধী শিক্ষকদের ৭ দিনের কর্মসূচী

63
jahangirnagar-university

আশীক আল অনিক, জাবি প্রতিনিধি : জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি)তে আওয়ামীলীগপন্থি শিক্ষকদের দুই গ্রুপের হাতাহাতির ঘটনায় দ্বিতীয় দিনের মতো প্রশাসনিক ভবনে অবরোধ কর্মসূচি চালিয়েছেন উপাচার্য বিরোধী গ্রুপের শিক্ষকরা। আজ বুধবার সকাল ৮টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত নতুন এবং পুরাতন প্রশাসনিক ভবনের সামনে তারা এই অবরোধ কর্মসূচি চালান।অবরোধে ক্লাস-পরীক্ষা চললেও বন্ধ ছিল প্রশাসনিক কার্যক্রম। এদিকে আজ  বিকেল ৪টায় এক সংবাদ সম্মেলনে আবারো ৭ দিনের নতুন কর্মসূচি দিয়েছেন শিক্ষকগন। কর্মসূচীর মধ্যে রয়েছে:-

# উপচার্যের বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাক্ট বিরোধী সকল কার্যক্রম বন্ধ

#  শিক্ষক লাঞ্চনার বিচার, তদন্ত কমিটি বাতিল করা

# প্রক্টরসহ প্রক্টরিয়াল বডির অব্যাহতি কর্মসূচী

#  বৃহ:স্পতি বার, রবিবার, সোমবার ,সকল শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী, সাংবাদিক সংগঠনের সাথে মত বিনিময়।

# মঙ্গলবার প্রশাসনিক ভবনের সামনে কালো পতাকা উত্তোলন

#  বুধবার ২ ঘন্টা ১১-১টা পর্যন্ত প্রশাসনিক ভবন অবরোধ

# বৃহ:স্পতি বার সমাবেশের মাধ্যমে দাবি আদায় না হলে নতুন কর্মসূচী ঘোষনা।

শরীফ এনামুল কবিরের অনুসারী শিক্ষক সংগঠনের মুখপাত্র ও দর্শন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ফরিদ আহমেদ সংবাদ সম্মেলনে জানান,প্রক্টরিয়াল বডির অপসারণ, তাদের গ্রুপের শিক্ষকদের উপর ‘হামলাকারী’ শিক্ষকদের শাস্তি এবং হাতাহাতির ঘটনায় নিরপেক্ষ তদন্ত কমিটি গঠনের দাবিতে বৃহস্পতি, রবি এবং সোমবারবিশ্ববিদ্যালয়েরছাত্র, শিক্ষক,

কর্মচারি এবং সাংবাদিক সংগঠনের সাথে গণসংযোগ কর্মসূচি চালানো হবে। এরপর মঙ্গলবার প্রশাসনিক ভবনের সামনে কালো পতাকা উত্তোলন কর্মসূচি এবং বৃহস্পতিবার, ২৬ এপ্রিল সকাল ১১টা থেকে বেলা ১টা পর্যন্ত প্রশাসনিক ভবন অবরোধের পর ঐ দিন আবার নতুন করে কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।প্রসঙ্গত, প্রথম মেয়াদের দায়িত্ব শেষ করার পর অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলামের দ্বিতীয় মেয়াদে পুনঃনিয়োগ পাওয়াকে কেন্দ্র্র করে দুইভাগে বিভক্ত হয়ে পড়েছে জাবির শিক্ষক রাজনীতি। দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকেই উপাচার্য ফারজানা ইসলামের প্রশাসনের বিরুদ্ধে আন্দোলন- কর্মসূচি চালিয়ে আসছিলেন শরীফ এনামুল কবিরপন্থি শিক্ষকরা। তারই ধারাবাহিকতায় প্রশাসনিক রদবদলকে কেন্দ্র মঙ্গলবার অবরোধ কর্মসূচির পালন করেন উপাচার্য বিরোধী শিক্ষকরা। অবরোধের উদ্দেশ্যে কবিরপন্থি শিক্ষকদের ভোর ৫টার সময় পরিবহন ডিপোতে তালা লাগানোকে কেন্দ্র করে হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়েন গ্রুপ দুটির শিক্ষকরা।

ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন