জাষ্টিস ফর ওমেন-বাংলাদেশ, একটি সামাজিক আন্দোলন। নারী নির্যাতনের কথা এখানে জানান

145
justice_for_women_bangladesh

সোস্যাল মিডিয়া বিশষে করে ফেসবুককে অনেকে অনেকভাবে ব্যবহার করছেন। কিন্তু সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবি এম. হায়দার তানভীর, সাইবার সিকিউরিটি স্পেসালিষ্ট অংকন পুরাকায়স্থ, সাইবার ক্রাইম স্পেশালিস্ট মাহাবুবুর রহমান, সোস্যাল ওয়ার্কার সৈয়দ জুবায়ের আহমেদ জুবি, সমাজকর্মী ইফরিত জাহিন কুঞ্জ, রুবামা ফাইরোজ, ওয়াকিল আহমেদ, ডায়াস ড্যানিয়েল জুয়েলসৌমিক হাসান মিলে গড়ে তুলেছেন বা পরিচালনা করেন জাষ্টিস ফর ওমেন-বাংলাদেশ Justice For Women-Bangladesh । এটি মুলত:HelpAid Foundation এর অন্তর্ভুক্ত একটি প্রকল্প। এক কথায় এটি একটি সামাজিক আন্দোলন। নারী নির্যাতন, নারীর প্রতি সহিংসতা, নারী অধিকার, সোস্যাল মিডিয়ায় নারী হয়রানির প্রতিকার, নারীকে ব্লাক মেইলিং সবকিছুর প্রতিকার দিতেই এই গ্রুপ জাষ্টিস ফর ওমেন-বাংলাদেশ ।

justice_for_womenএই রিপোর্টটি যখন লিখছি, না, কারো সাথেই কথা হয়নি। জাষ্টিস ফর ওমেন- বাংলাদেশ গ্রুপের সদস্য সংখ্যা তিন লক্ষ ছাড়িয়ে গেছে। গ্রুপে সদস্য হতে কিছু নিয়মাবলী আছে, আপাতত: সেটাই পাঠকের সামনে দিতে চাই। বনানীর রেইন ট্রি হোটেলের ঘটনায় ধর্ষিত দুই শিক্ষার্থীর লোমহর্ষক বর্ননা: মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আপনি আমাদের মা, প্লিজ হস্তক্ষেপ করুন এবং পরবর্তীতে জাস্টিস ফর ওমেন-বাংলাদেশ, ঢাকায় প্রেস ক্লাবের সামনে মানব বন্ধন ও র‌্যালীর আয়োজন করে। মানব বন্ধন ও র‌্যালীর কিছু ছবি গ্রুপটির সৌজন্যে প্রকাশ করা হলো..

ফোকাস বাংলায় প্রকাশিত নারী নির্যাতন বিষয়ে রিপোর্ট মন চাইলে পড়তে পারেন

মৃত্যু রহস্য: এই মিছিলে নারী এগিয়ে কেন ! তোমাদের হাসিমুখ আমাদের লজ্জিত করে!

জুয়ায় হেরে বন্ধুকে দিয়ে ধর্ষন এবং অত:পর থানায় মামলা”

“পুলিশ রিমান্ডে নারীর স্তন ও গোপনাঙ্গে বৈদ্যুতিক শক !”

কাজের আশায় প্রবাসে গিয়ে জানেন যৌনকর্মী হিসেবে বিক্রি করা হয়েছে

বিমানবন্দরে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ

“তিন তালাকের বিষয়টিকে নিন্দা করল ভারতের শীর্ষ আদালত”

মনিষা পৈলান একজন সাহসী নারী

stop_rape_no_means_noকফি হাউজের আলোচনায় উঠে এসেছে নারী বিষয়ক আলোচনা। চাইলে আপনিও অংশ নিতে পারেন। আমাদের লিখে পাঠান এই ঠিকানায় fbnews2017@gmail.com

ধর্ষণ বলপ্রয়োগ বলাৎকার

নারী দিবস একদিন আর পুরুষ দিবস ৩৬৪ দিন

নারী বিষয়ক আলাপচারিতা। একটি ঐতিহাসিক ডিসকোর্সে নারী

রোকেয়া শাখাওয়াত হোসেন নারীবাদি চিন্তায় পুরষতন্ত্র ও ধর্মকে প্রথম আক্রমন করেছিলেন

জাষ্টিস ফর ওমেন-বাংলাদেশ গ্রুপে সদস্য হবার নিয়মাবলী:

১. নারী – পুরুষ সকলকেই এই গ্রুপে স্বাগতম। খালি আপনাকে অন্যকে সর্বাত্মক সহযোগীতা করার মন মানসিকতা রাখতে হবে। আপনাকে গ্রুপে কম্পলেইন সরাসরি পোস্ট করা লাগবে। বা চাইলে আমাদের ফেসবুক পেজেও কম্পেইল সাবমিট করতে পারেন।

কোনো ফেক প্রোফাইল গ্রুপে এড করা হবে না….. কোন ফেক প্রোফাইল যদি আমাদের গ্রুপে ঢুকে কাউকে হ্যারেস করার চেষ্টা করে, তার বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

৩. গ্রুপের সদস্যরা নিজেদের অন্তর্গত কোন্দল গ্রুপে পোস্ট করবেন না, করলে আপনাকে ব্যান করা হবে।

৪. গ্রুপের কোনো সদস্যকে হেয় প্রতিপন্ন করে পোস্ট দেওয়া যাবে না।

৫.সকল পোস্ট এডমিনের এপ্রুভাল ছাড়া গ্রুপে পাবলিশ করা হয় না।

৬.অবান্তর কোনো কমেন্টস করলে তাকে গ্রুপ থেকে ব্যান করা হবে।

৭.কোনো রকমের মিথ্যা কম্পলেইন করা যাবে না, করলেই তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে, কারন গ্রুপে গোপন গোয়েন্দা বাহিনী আছেন যারা ইনভেস্টিগেশন করে থাকেন এবং তারা অনেক বেশি স্কিলড।

৮. মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বিরোধী, সরকার বিরোধী ও ধর্মীয় বিদ্বেষাগার মনোভাব পূর্ণ কাউকে গ্রুপে এড করা হবে না।
আর কাউকে এই ধরনের কার্যকলাপে অংশগ্রহণ করতে দেখলে তার বিরুদ্ধে কঠোর আইনী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

৯. গ্রুপে খুব সুলভ মূল্যে আইনী সহায়তা দেয়া হয়, তাই আমাদের এখানে আর্থিক ভাবে লাভবান হবার সুযোগ নেই। কেউ যদি আমাদের এই গ্রুপে আর্থিক সহযোগীতা করতে ইচ্ছুক হন, এডমিন কারো সাথে চাইলে যোগাযোগ করতে পারেন।

১০. আইডি কার্ড ধারী ভলেন্টিয়ার ব্যতিত কেউ ভিক্টিমকে সরাসরি ইনবক্স এ আসার আহবান করতে পারবে না,ভিক্টিমের নিরাপত্তার খাতিরে কেবল ভলেন্টিয়ার বা এডমিনই তাকে ইনবক্স এ পরামর্শ দিতে পারবেন।

কিভাবে সাহায্য পাবেন

যেসব নারীরা গৃহস্থালি নির্যাতন আর অনলাইন হ্যারেসম্যান্ট বা সাইবার ক্রাইমের শিকার, তারা নিজেদের সমস্যা গ্রুপে পোস্ট করবেন। জাষ্টিস ফর ওমেন-বাংলাদেশ গ্রুপে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক পুলিশ অফিসার, হ্যাকার, সামাজিক কর্মী, সেচ্ছাসেবক, মানবাধিকার কর্মী, আইনজীবী, সামরিক ও বেসামরিক উচ্চপদস্ত বাক্তি বর্গ আছেন-আশা করা যায় প্রত্যেকেই আপনার সমস্যা সমাধানে যথাযথ সহায়তা করবেন।

এছাড়া গ্রুপে একটি গুগল ফর্ম দেয়া আছে। লিন্কে গিয়ে ক্লিক করলে ফর্মটি ওপেন হলেই আপনি আপনার সমস্যার কথা লিখে জানাবেন। জাষ্টিস ফর ওমেন-বাংলাদেশ এর দায়িত্বপ্রাপ্ত ভলান্টিয়ার আপনার সমস্যাটির ত্বড়িত ব্যবস্থা নিবেন।

আপনার সমস্যার কথা এখানে জানাতে ক্লিক করুন

জাষ্টিস ফর ওমেন-বাংলাদেশ গ্রুপে ভলান্টিয়ার হয়ে দায়িত্বপালন করছেন জান্নাতুল ফেরদৌস জ্যোতি, তানজিলা খান (ঘুম), মেহেদী হাসান (নানাভাই), শুভাশীষ রায় শুভ, কাজী মারুফ আবদুল্লাহ, জাকারিয়া সিকদার, মাহিনুর আক্তার , মেহেদী রায়হান রেজা, সিফাত তানজিলা, তাহান বিন জাহিদ, সাইফুর রহমান মাহিন, উপমা তালুকদার। প্রত্যেকেই গ্রুপের এক একজন মডারেটর।

“মানবাধিকার কর্মী লেনা, তথ্যচিত্রের জন্য মালয়েশীয় আদালতে অভিযুক্ত”

আপাতত: এটুকুই জাষ্টিস ফর ওমেন-বাংলাদেশ নিয়ে আবার হয়তো হাজির হবো। প্রত্যাশায়

ফোবানি/মৃত্তিকা

ফেসবুক থেকে মন্তব্য করুন